কীভাবে Android অ্যাপ লক ব্যবহার করবেন

Android
অতিরিক্ত গোপনীয়তা ব্যবস্থা হিসেবে আপনি নিজের ফোনে WhatsApp-এর জন্য অ্যাপ লক চালু করতে পারবেন। এটি চালু করা থাকলে, আপনাকে অ্যাপটিতে অ্যাক্সেস পেতে অ্যাপ আনলক করতে হবে এবং এর জন্য নিজের ফিঙ্গারপ্রিন্ট বা ফেস অর্থাৎ মুখের চেহারা ব্যবহার করতে হবে। অ্যাপটি লক করা থাকলেও আপনি কলের উত্তর দিতে পারবেন।
এই বৈশিষ্ট্যটি ব্যবহার করার জন্য আপনাকে বায়োমেট্রিক সেট-আপ করতে হবে যেমন আপনার ফোনের সেটিংস থেকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট বা ফেস স্ক্যান করা।
অ্যাপ লক চালু করতে
  1. WhatsApp খুলুন > আরও বিকল্প
    > সেটিংস > গোপনীয়তা-তে ট্যাপ করুন।
  2. নিচের দিকে স্ক্রোল করে অ্যাপ লক-এ ট্যাপ করুন।
  3. বায়োমেট্রিক দিয়ে আনলক করুন চালু করুন।
  4. নিশ্চিত করতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরটি স্পর্শ করুন বা আপনার ফেস স্ক্যান করুন।
  5. আপনি ফিঙ্গারপ্রিন্টের প্রমাণীকরণ চাওয়ার আগে ট্যাপ করে সময়সীমা বেছে নিতে পারবেন।
    • আপনি নতুন মেসেজের বিজ্ঞপ্তির মধ্যে মেসেজের প্রিভিউ টেক্সট দেখতে চাইলে বিজ্ঞপ্তিতে কন্টেন্ট দেখুন চালু করুন।
অ্যাপ লক বন্ধ করতে
  1. WhatsApp খুলুন > আরও বিকল্প
    > সেটিংস > গোপনীয়তা-তে ট্যাপ করুন।
  2. নিচের দিকে স্ক্রোল করে অ্যাপ লক-এ ট্যাপ করুন।
  3. বায়োমেট্রিক দিয়ে আনলক করুন বন্ধ করুন।
দ্রষ্টব্য:
  • বর্তমানে Android 6.0 এর পরবর্তী ভার্সনের Android ডিভাইস যাতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরের সুবিধা আছে শুধুমাত্র তাতেই ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক উপলভ্য আছে, যা Google ফিঙ্গারপ্রিন্টের API সাপোর্ট করে।
  • ফেস স্ক্যানার আছে শুধুমাত্র এমন Android ডিভাইসে ফেস স্ক্যানিং সুবিধা উপলভ্য আছে।
  • এই বৈশিষ্ট্যটি Samsung Galaxy S5, Samsung Galaxy Note 4 বা Samsung Galaxy Note 8-এ সাপোর্ট করা হয় না।
  • ফেস এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রমাণীকরণের প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণভাবে আপনার ডিভাইসে সংঘটিত হয়। ডিজাইন অনুসারে, আপনার ডিভাইসের অপারেটিং সিস্টেমের স্টোর করা বায়োমেট্রিক তথ্যে WhatsApp অ্যাক্সেস করতে পারে না।
এখানে কি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়েছেন?
হ্যাঁ
না