কীভাবে দায়িত্বশীলভাবে WhatsApp ব্যবহার করতে হয়


অন্য ব্যক্তির কাছে মেসেজ পাঠানোর জন্য WhatsApp একটি সহজ, সুরক্ষিত ও নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে তৈরি করা হয়েছে। স্বভাবতই মেসেজিং ব্যক্তিগত ও গোপনীয় হয় এবং আমাদের প্ল্যাটফর্ম ও ব্যবহারকারীদেরকে নিরাপদ রাখতে আমাদের পরিষেবার শর্তাবলী সেইভাবে ডিজাইন করা হয়েছে। WhatsApp-এর দায়িত্বশীল ব্যবহার নিশ্চিত করতে এর সকল ব্যবহারকারীদের নিচের নির্দেশিকাটি পর্যালোচনা করা আবশ্যক।
যা করা উচিত
  • চেনা পরিচিতির সাথে যোগাযোগ করা: শুধুমাত্র এমন লোকজনদের মেসেজ পাঠান যারা WhatsApp-এ আপনার সাথে প্রথমে যোগাযোগ করেছেন বা আপনাকে যারা যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করেছেন। পরিচিতিকে আপনার ফোন নম্বর প্রদান করুন যাতে তিনি আপনাকে প্রথমে মেসেজ পাঠাতে পারেন।
  • অনুমতি চাওয়া এবং সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো: পরিচিতিকে কোনও গ্রুপে যোগ করার আগে আপনার উচিত তার কাছ থেকে অনুমতি নেওয়া। আপনি যদি কোনও ব্যক্তিকে গ্রুপে যোগ করেন এবং তিনি যদি নিজেকে সরিয়ে নেন, তাহলে তার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানান।
  • গ্রুপের নিয়ন্ত্রণ ব্যবহার করুন: WhatsApp গ্রুপের জন্য আমরা শুধুমাত্র অ্যাডমিন দ্বারা পরিচালিত মেসেজ সেটিং তৈরি করেছি। আপনি অ্যাডমিন হলে এটি ঠিক করতে পারবেন যে সকল সদস্য নাকি শুধুমাত্র গ্রুপের অ্যাডমিনরাই গ্রুপে মেসেজ পাঠাতে পারবেন। এই বৈশিষ্ট্যটি ব্যবহার করে গ্রুপের অপ্রয়োজনীয় মেসেজ কমানো যাবে। কীভাবে Android, iPhone, KaiOS বা ওয়েব এবং ডেস্কটপ-এ গ্রুপ অ্যাডমিনের সেটিংস পরিবর্তন করতে হয় তা জানুন।
  • মেসেজ ফরোয়ার্ড করার আগে দুবার ভাবুন: আমরা প্রত্যেকটি ফরোয়ার্ড করা মেসেজের জন্য লেবেল তৈরি করেছি এবং আপনি মেসেজ কতবার ফরোয়ার্ড করতে পারবেন সেটির সংখ্যা সীমাবদ্ধ করেছি, যাতে ব্যবহারকারী মেসেজ শেয়ার করার আগে পুনর্বিবেচনা করেন। মেসেজে লেখা বিষয়টি সত্যিই কিনা এ ব্যাপারে আপনি যদি নিশ্চিত না হন বা আপনার পাওয়া মেসেজটি কে লিখেছেন তা না জানেন, তাহলে আমরা এটি ফরোয়ার্ড না করার পরামর্শ দেব। কীভাবে ভুল তথ্য ছড়ানো রোধ করা যায় তা জানতে এই নিবন্ধটি দেখুন।
এগুলি এড়িয়ে চলুন
নিচের তালিকাভুক্ত যেকোনও প্রকারে WhatsApp ব্যবহার করার কারণে আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হতে পারে।
  • অপ্রয়োজনীয় মেসেজ: যদি কোনও পরিচিতি আপনাকে মেসেজ পাঠানো বন্ধ করতে বলে, তাহলে নিজের ঠিকানার বই থেকে সেই পরিচিতিকে সরিয়ে দিন এবং তার সাথে আর যোগাযোগ করবেন না।
  • আগে থেকে সেট করা মেসেজ বা বাল্ক মেসেজ: WhatsApp ব্যবহার করে বাল্ক মেসেজ, অটো-মেসেজ বা অটো-ডায়েলের চেষ্টা করবেন না। যে সমস্ত অ্যাকাউন্ট থেকে 'আগে থেকে সেট করা' অপ্রয়োজনীয় মেসেজ পাঠানো হয় সেগুলি শনাক্ত ও নিষিদ্ধ করতে WhatsApp মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি এবং ব্যবহারকারীদের থেকে পাওয়া রিপোর্ট উভয়ই ব্যবহার করে। এছাড়া অনুমোদিত নয় বা অটোমেটিক পদ্ধতিতে অ্যাকাউন্ট বা গ্রুপ তৈরি করবেন না অথবা WhatsApp-এর পরিবর্তিত ভার্সন ব্যবহার করবেন না। WhatsApp কীভাবে আগে থেকে সেট করা এবং বাল্ক মেসেজিংয়ের অপব্যবহার রোধ করে সে সম্পর্কে আরও তথ্যের জন্য আপনি এই অনুমোদিত বিবৃতি পড়তে পারেন।
  • অন্য কারও পরিচিতির তালিকা ব্যবহার করা: সম্মতি ছাড়া ফোন নম্বর শেয়ার করবেন না বা WhatsApp-এ ব্যবহারকারীকে মেসেজ পাঠাতে বা গ্রুপে যোগ করার জন্য বেআইনী উৎস থেকে প্রাপ্ত ডেটা ব্যবহার করবেন না।
  • ব্রডকাস্টের তালিকা অতিরিক্ত ব্যবহার করা: ব্যবহারকারীরা তাদের পরিচিতি তালিকায় আপনার ফোন নম্বর যোগ করলেই কেবল ব্রডকাস্টের তালিকা ব্যবহার করে পাঠানো মেসেজ গ্রহণ করতে পারবেন। অনুগ্রহ করে মনে রাখবেন, ব্রডকাস্ট মেসেজ বারবার ব্যবহার করলে লোকেরা আপনার মেসেজের বিষয়ে রিপোর্ট করতে পারেন এবং একাধিকবার রিপোর্ট করা অ্যাকাউন্ট আমরা নিষিদ্ধ করি।
  • ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করা: অনুমোদিত নয় এমন কোনও উদ্দেশ্যে অটোমেটেড বা ম্যানুয়াল টুল ব্যবহার করে WhatsApp থেকে বৃহৎ পরিমাণে তথ্য সংগ্রহ করা এড়িয়ে চলুন। এই পদ্ধতিতে WhatsApp থেকে ব্যবহারকারীদের ফোন নম্বর, প্রোফাইলের ছবি এবং স্ট্যাটাস সহ অন্যান্য তথ্য সংগ্রহ করলে আমাদের পরিষেবার শর্তাবলী লঙ্ঘন করা হয়।
  • আমাদের পরিষেবার শর্তাবলী লঙ্ঘন করা: মনে রাখবেন যে, আমাদের পরিষেবার শর্তাবলী অন্যান্য বিষয়বস্তুর মধ্যে মিথ্যাচার প্রচার এবং বেআইনি, ভীতি প্রদর্শনমূলক, আতঙ্ক সৃষ্টিকারী, ঘৃণা বিস্তারকারী কর্মকাণ্ডে যুক্ত হওয়া এবং বর্ণগত বা জাতিগত দিক থেকে অপরাধমূলক আচরণকে নিষিদ্ধ করে। আপনি এখান থেকে আমাদের 'পরিষেবার শর্তাবলী' পর্যালোচনা করতে পারেন।
সংশ্লিষ্ট রিসোর্স:
এখানে কি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়েছেন?
হ্যাঁ
না